'২০১৭ তে কেমন ছিল বাংলাদেশ'

নিউজ ডেস্ক | 2018/01/01 | 13:20

২০১৭'র অনেক স্মৃতি-বিস্মৃতিকে পিছনে ফেলে চলে এসেছে ২০১৮ সাল। ঘটে গিয়েছে অনেক ঘটনা। না পাওয়ার বেদনা আর পাওয়ার আনন্দও রয়েছে সবার মনে। বিস্তর আলোচনা-সমালোচনাও রয়েছে গেল বছর নিয়ে। বন্যা ও পাহাড় ধসের মতো দুর্যোগ, রোহিঙ্গা সঙ্কট, অন্তর্ধান, ঊর্ধ্বমুখী চালের বাজার অস্বস্তিতে ফেললেও রাজনীতির মাঠে অস্থিরতা না থাকায় অনেকটা স্বস্তিবোধ ছিল মানুষের মধ্যে। বিদায়ী বছরটিতে আমরা কী চেয়েছি, কী পেয়েছি, হারিয়েছি–ই বা কী তার হিসাব মিলানোর ভার থাক কালপুরুষের হাতে। কেমন কেটেছে ২০১৭ সাল- এ প্রশ্নটিও তাই অবান্তর। প্রাপ্তি আর অপ্রাপ্তির মাঝের দুস্তর ব্যবধান কখনো পূরণ হবার নয়। তবুও বছরজুড়েই শিরোনাম হয়েছে নানা ঘটনা-দুর্ঘটনা। বিশ্ববাসীর নজর কেড়েছে বাংলাদেশিদের নানা অর্জন। চায়ের কাপে ঝড় তোলা এমন কিছু ঘটনা নিয়ে আমাদের আয়োজন '২০১৭ তে কেমন ছিল বাংলাদেশ'।

রাজনৈতিক অঙ্গনে স্থিতিশীলতায় ২০১৭ সাল স্বস্তিতে পার করতে পারলেও বাংলাদেশকে ২০১৮ সাল শুরু করতে হচ্ছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিশাল চ্যালেঞ্জ সামনে নিয়ে। সরকারের সঙ্গে বিচার বিভাগের টানাপড়েনআর প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ ছিল বিদায়ী বছরের অন্যতম আলোচিত ঘটনা। প্রশ্নফাঁস ঠেকাতে সরকারের অসহায়ত্ব নতুন প্রজন্মের ভবিষ্যত নিয়েই প্রশ্ন জাগিয়েছে। এ বছর অর্থনীতির নানা সূচকে আরও এগিয়েছে বাংলাদেশ; কিন্তু সে সাফল্য ম্লান করে দিয়েছে চালের বাজারের অস্থিরতা আর ব্যাংক খাতের বিশৃঙ্খলা।

পাহাড় ধস: 
১৩ জুন ছিল বিভীষিকার। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান— পাঁচ পার্বত্য জেলায় ভয়াবহ ভূমিধসের ঘটনায় দেড় শতাধিক মানুষের মৃত্যুর পাশাপাশি মানবিক বিপর্যয়ের ঘটনা ঘটে। বাংলাদেশের ইতিহাসে পাহাড় ধসে এটাই সবচেয়ে বড় প্রাণহানির ঘটনা। অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ধসের কারণে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি পাহাড়ি অঞ্চল মৃত্যুর বিভীষিকায় পরিণত হয়। পাহাড়ধসের এই মর্মান্তিক ঘটনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় রাঙামাটি।

উপকূলে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’:
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ ৩০ মে বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানে। ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৪৬ কিলোমিটার গতিবেগের এ ঝড় সবচেয়ে বেশি সময় অবস্থান করে টেকনাফ, কুতুবদিয়া, কক্সবাজার, সেন্টমার্টিন দ্বীপ এলাকায়। সেন্টমার্টিন থেকে শুরু করে টেকনাফ, শাহপরীর দ্বীপ, কুতুবদিয়া, কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের উপকূলীয় অঞ্চল দিয়ে বাংলাদেশে অতিক্রম করে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’য় নিহত হয় ৬ জন ও আহত হয় ৬১ জনের মতো। এতে ৩১টি উপজেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

প্রশ্নফাঁস:
এইচএসসি, এসএসসির পর জেএসসি-পিইসির গণ্ডি ছড়িয়ে প্রশ্নফাঁসের রোগ এ বছর ছড়িয়ে পড়েছে প্রাথমিকের বার্ষিক পরীক্ষাতেও।  নানা উদ্যোগের পরও বিভিন্ন পাবলিক বা প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র আগেই চলে আসছে ফেইসবুকে। সেই প্রশ্ন সংগ্রহ করে নিজের সন্তানের হাতে তুলে দেখা যাচ্ছে অভিভাবকদের। কোনোভাবেই কিছু করতে না পেরে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের কণ্ঠে প্রকাশ পেয়েছে অসহায়ত্ব। তিনি দুষছেন শিক্ষকদের। আর দুদক অনুসন্ধান করে বলছে, এর পেছনে কোচিং ব্যবসারও বড় ভূমিকা রয়েছে। আইন শৃঙ্খলাবাহিনী বছরের বিভিন্ন সময়ে প্রশ্নফাঁসে জড়িত সন্দেহে বহু মানুষকে গ্রেপ্তার করেছে। কিন্তু কেন প্রশ্নফাঁস ঠেকানো যাচ্ছে না- সে প্রশ্নের উত্তর মেলেনি।  

অস্থির চালের বাজার:
তিন দফা বন্যা ২০১৭ সালে বড় ধাক্কা দিয়ে গেছে শস্য উৎপাদনে। এই পরিস্থিতিতে চালের বাজারে ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস তুলে ছেড়েছে। বছরের শুরুতে যেখানে মোটা চালের দাম ছিল গড়ে ৩৫-৩৬ টাকা, সেখানে বছরের শেষে এসে বাজারে ৪৮ টাকার নিচে এক কেজি চালও মিলছে না। ভালো মানের চালের জন্য গুণতে হচ্ছে কেজিতে ৬০ টাকার বেশি। বছরের শুরুতে উত্তরে আকস্মিক ঢল আর মধ্যভাগে ৩২ জেলায় বন্যার পর মজুদ তলানিতে ঠেকে যাওয়ায় আমদানি শুল্ক কমিয়ে এনেছে অনেকটাই। সেই সঙ্গে জরুরি ভিত্তিতে সরকারি ভাবেও চাল কেনা হচ্ছে বিদেশ থেকে। কিন্তু তাতেও চালের বাজারে অস্থিরতা না কমায় সরকারের পক্ষ থেকেই মিল মালিক আর ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটকে দায়ী করা হয়। উত্তরবঙ্গে বিভিন্ন চালকলে চালানো হয় অভিযান। তাতে পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে গেলে অক্টোবরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠকে বসে প্রশাসন। সেই সঙ্গে আমদানি করা চালের প্রভাবে বাজারে চালের দাম সামান্য কমে।

কমেনি পেঁয়াজের ঝাঁজ:
বাজারের এই পরিস্থিতে বছরের শেষভাগে ঊর্ধ্বগামী হয় পেঁয়াজের দাম। বছরের শুরুতে যেখানে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজের দাম ২৫-৩০ টাকা আর ভারতীয় পেঁয়াজ ২০-২২ টাকা ছিল, তা বেড়ে ১৪০ টাকা পর্যন্ত ওঠে। শীত শুরুর পর নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসায় ৭০- ৮০ টাকার মধ্যে পেঁয়াজ পাওয়া যায়।

গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি:
গ্যাস-বিদ্যুতের দামও দৈনন্দিন খরচ বাড়িয়েছে, যা নিয়ে অসন্তোষ রয়েছে মানুষের মনে। ফেব্রুয়ারিতে বিভিন্ন খাতে গ্যাসের দাম ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানো হয়। আর নভেম্বরে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয় ৫ দশমিক ৩ শতাংশ। গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ায় দুই দফা হরতালও করে বামদলগুলো।

জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ:
গতবছর গুলশান হামলার পর থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতায় সালের শুরু পরিস্থিতি শান্তই ছিল। কিন্তু ৭ মার্চ কুমিল্লায় একটি বাসে তল্লাশির সময় পুলিশের দিকে বোমা ছোড়ার ঘটনায় জঙ্গিদের নতুন করে সংগঠিত হওয়ার ইংগিত পাওয়া যায়। ওই মাসেই ঢাকার আশকোনায় র‌্যাবের একটি ব্যারাকে, খিলগাঁওয়ের ‘শেখের জায়গা’য় র‌্যাবের  চেকপোস্টে এং মার্চের শেষ দিকে ঢাকায় বিমানবন্দর পুলিশ বক্সের সামনে আত্মঘাতী বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।এই প্রেক্ষাপটে মার্চে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড, সিলেটের শিববাড়ি, মৌলভীবাজারের নাসিরপুর ও বড়হাট,  কুমিল্লার কোটবাড়ী; এপ্রিলে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ; মে মাসে ঝিনাইদহের মহেশপুর, রাজশাহীর গোদাগাড়ী, জুনে রাজশাহীর তানোর, জুলাইয়ে ঢাকার আশুলিয়া, অগাস্টে ঢাকার পান্থপথে একটি আবাসিক হোটেলে, সেপ্টেম্বরে ঢাকার মিরপুরে, অক্টোবরে শেরপুর ও যাশোরে এবং নভেম্বরে নওগাঁয় জঙ্গি দমনে চলে শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান। এসব জঙ্গি আস্তানার অনেকগুলোতেই বিস্ফোরকের মজুদ পাওয়ার কথা জানায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী।  এ বছর মোট ১৮টি অভিযানে নিহত হয় ২৮ সন্দেহভাজন জঙ্গি,  গ্রেপ্তার করা হয় ৩৬ জনকে।

ধর্ষণ এবং আপন:
জন্মদিনের অনুষ্ঠানের কথা বলে ২৮ মার্চ বনানীর রেইনট্রি হোটেলে ডেকে নিয়ে দুই তরুণীকে ধর্ষণের মামলা ছিল গত বছরের অন্যতম আলোচিত ঘটনা। ওই ঘটনায় আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সাফাত আহমেদ, তার বন্ধু নাঈম আশরাফ ও সাদমান সাকিফসহ পাঁচজনের বিচারও শুরু হয়েছে। ওই দুই তরুণীর মধ্যে একজন ঘটনার মাসখানেক পর মামলা করলে সোশাল মিডিয়ায় ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়। সাফাতের পক্ষে সাফাই গাইতে গিয়ে তোপের মুখে পড়েন আপন জুয়েলার্সের অন্যতম মালিক দিলদার আহমেদ।

শাকিব-অপু:
আট বছর ধরে বিয়ের খবর গোপন করেছিলেন তারকা জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। বছরের শুরুতে সন্তানসহ অপু বোমা ফাটান বিয়ের খবর ফাঁস করে। আর শাকিব বছরটা শেষ করেন অপুকে তালাকনামা পাঠিয়ে। ২০১৬ সালের মাঝামাঝি হঠাৎ নিখোঁজ হন অপু বিশ্বাস। হঠাৎ ঢাকায় ফিরে চমকে দেন ভক্তদের। ১০ এপ্রিল সন্তান কোলে এক অনুষ্ঠানে তিনি জানান, শাকিব খানের সঙ্গে ২০০৮ সালে তার বিয়ে হয়। তার কোলে শাকিবেরই ছেলে আব্রাহাম খান জয়।বিয়ের কারণে ধর্মান্তরিত হয়ে অপু ইসলাম খান নাম নেওয়ার কথাও বলেন এই চিত্রনায়িকা। অবশ্য পরে শাকিবও সাংবাদিকদের সামনে বিয়ের কথা স্বীকার করে নেন। বছরের মাঝামাঝি থেকেই দুজনের বিচ্ছেদের গুঞ্জন রটে। পরে সেই গুঞ্জনটাই সত্যি হয় বছরের শেষ দিকে এসে। আইনজীবীর মাধ্যমে ২২ নভেম্বর অপুর ঠিকানায় তালাকনামা পাঠান শাকিব খান।

সাত খুনে ১৫ ফাঁসি:
নারায়ণগঞ্জে অপহরণের পর হত্যার ‘সাত খুন’ মামলায় ৩৫ জনকে দণ্ডিত করে রায় ঘোষণা করা হয়। দণ্ডপ্রাপ্তদের মধ্যে ২৬ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। র‌্যাবের আরও নয়জন সাবেক কর্মীকে বিভিন্ন মেয়াদে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আসামিরা আপিল করলে ২২ আগস্ট নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর সাত খুন মামলায় রায় দেয় হাই কোর্ট । রায়ে ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়। আদালত ১১ জনের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে এবং বিভিন্ন মেয়াদে সশ্রম কারাদণ্ডপ্রাপ্তদের সাজাও বহাল রেখেছে।

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ: 
এ বছর প্রধান বিচারপতির ইস্যুকে কেন্দ্র করে আদালতপাড়াসহ সারা দেশের রাজনৈতিক অঙ্গন সরগরম হয়ে ওঠে। ২০১৭ সালের ৩ জুলাই ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের সেই রায় বহাল রেখে রায় প্রকাশ করে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ। রায়ে একক নেতৃত্বের সমালোচনা করায় বঙ্গবন্ধুকে অসম্মান করা হয়েছে বলে অভিযোগ তোলে আওয়ামী লীগ। শুরু হয় রায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে তর্ক-বিতর্ক। গত ২ অক্টোবর এক মাস ছুটির কথা জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বরাবর চিঠি পাঠান প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা। ছুটি নিয়ে বিদেশ যাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অর্থ পাচার, আর্থিক অনিয়ম ও নৈতিক স্খলনসহ ১১টি অভিযোগ ওঠার কথা সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে দেশবাসীকে জানানো হয়। ছুটিতে থাকা এস কে সিনহা ১০ নভেম্বর সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বরাবর পদত্যাগপত্র জমা দেন। ১২ নভেম্বর রাষ্ট্রপতি তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেন।

বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’:
মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘটনায় লাখ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রাণ বাঁচাতে ছুটে আসে বাংলাদেশ সীমান্তে। মানবিক কারণে তাদের আশ্রয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই সিদ্ধান্ত বিশ্বনেতারা তো বটেই, বিশ্ববাসীর কাছে ছিল মানবতার অনন্য উদাহরণ। রোহিঙ্গাদের আশ্রয়, খাবার ও চিকিৎসা দিয়ে বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্ব মিডিয়ায় তিনি জায়গা করে নেন ‘মাদার অব হিউম্যানিটি’ বা ‘মানবতার মা’ শিরোনামে। জাতিসংঘ মহাসচিব থেকে শুরু করে খ্রিস্টীয় ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস— সবাই প্রধানমন্ত্রীর এই মানবিক সিদ্ধান্তে শ্রদ্ধা ও সমর্থন দেন। মানবতার অনন্য নজির স্থাপন করায় শেখ হাসিনা প্রশংসিত হন দেশ-বিদেশে।

৭ মার্চের ভাষণের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি:
ইউনেস্কোর একটি উপদেষ্টা কমিটি গত ৩০ অক্টোবর ১৯৭১ সালের ৭ মার্চে দেওয়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণটিকে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ  প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। এ ধরনের দলিলগুলো যে ‘মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্ট্রারে’ অন্তর্ভুক্ত করা হয় সে তালিকায় এ ভাষণটিকেও অন্তর্ভুক্ত করা হয়। সারা বিশ্ব থেকে আসা প্রস্তাবগুলো দুই বছর ধরে নানা পর্যালোচনার পর উপদেষ্টা কমিটি তাদের মনোনয়ন চূড়ান্ত করে। মূলত এর মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে যেসব তথ্যভিত্তিক ঐতিহ্য রয়েছে সেগুলোকে সংরক্ষণ এবং পরবর্তী  প্রজন্ম যেন তা থেকে উপকৃত হতে পারে সে লক্ষ্যেই এ তালিকা প্রণয়ন করে ইউনেস্কো।

পদ্মা সেতু দৃশ্যমান:
পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হলো এ বছর।  এ বছর ৩০ সেপ্টেম্বর সকালে প্রথম স্প্যান (সুপার স্ট্রাকচার) খুঁটির (পিয়ার) ওপর স্থাপন করা হয়। সেতুটির জাজিরা প্রান্তের ৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটির ওপর বসিয়ে দেওয়া হয় এটি। নদীর তীরে দাঁড়িয়ে এই দৃশ্য দেখেন শত শত মানুষ। প্রায় তিন হাজার ৬০০ টন ক্ষমতার ১৫০ মিটার দীর্ঘ সেতুর এই স্প্যানটি স্থাপনের মধ্য দিয়ে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর অগ্রগতির আরেক ধাপ এগিয়ে গেল।

বাংলাদেশে পোপ ফ্রান্সিস:
ক্যাথলিক খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সর্বোচ্চ ধর্মগুরু, ভ্যাটিকান সিটির রাষ্ট্রপ্রধান পোপ ফ্রান্সিস গত ৩০ নভেম্বর বাংলাদেশে তিন দিনের সফর করেন। বিশ্বের যে কোনো দেশে পোপের সফরকে অত্যন্ত মর্যাদাসম্পন্ন বিবেচনা করা হয়। এর আগেও দুজন পোপ বাংলাদেশে এসেছিলেন। ২৬২তম পোপ ষষ্ঠ এসেছিলেন ২৭ নভেম্বর প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় জলোচ্ছ্বাসে সমবেদনা জানাতে আর ২৬৪তম পোপ দ্বিতীয় জন পল বাংলাদেশে আসেন ১৯ নভেম্বর ১৯৮৮। একদিনের এ সফরের সময় স্টেডিয়ামে তিনি উপাসনা পরিচালনা করেন। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয়: 
আগস্টের শেষ সপ্তাহে কয়েক ডজন নিরাপত্তা চৌকিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার জবাবে সেনাবাহিনীর অভিযান শুরু হয়। পুড়িয়ে দেওয়া হয় কয়েকশ গ্রাম, হাজার হাজার মানুষকে হত্যা করা হয়, ধর্ষণের শিকার হন অসংখ্য নারী। প্রাণ ভয়ে ছুটে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দেয় বাংলাদেশ। দেশের আপামর জনতা কয়েক লাখ শরণার্থীকে ত্রাণ পাঠিয়ে মানবিক সহায়তা অব্যাহত রেখেছে। টেকনাফজুড়ে তাদের জন্য নির্মিত হয় শরণার্থী শিবির। লাখ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আশ্রয় দেওয়ায় বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশের ভূমিকার প্রশংসা হয়েছে। আন্তর্জাতিক চাপের মুখে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে রাজি হয়েছে মিয়ানমার।

WHO’র চ্যাম্পিয়ন সায়মা ওয়াজেদ: 
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদকে অটিজম বিষয়ে দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় অঞ্চলের অগ্রসৈনিক (ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন অ্যাওয়ার্ড) মনোনীত করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। এ ছাড়া সায়মা ওয়াজেদ (WHO)’র অটিজমবিষয়ক শুভেচ্ছা দূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ৬ জুলাই ২০১৭ তাঁকে আগামী দুই বছরের জন্য শুভেচ্ছা দূত হিসেবে নিয়োগের ঘোষণা দেন (WHO)’র দক্ষিণ -পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক।
 
পিলখানা হত্যাযজ্ঞের রায়:
২৭ নভেম্বর ২০১৭ পিলখানা হত্যাযজ্ঞের মামলার রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট বিভাগের হাই কোর্ট। পিলখানার নির্মম হত্যাযজ্ঞে ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪ জনকে হত্যা এবং ওই ঘটনায় করা মামলায় আসামির সংখ্যা বিবেচনায় এটি দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় মামলার রায়। হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) ও আপিলের রায়ে ১৩৯ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখে হাই কোর্ট। যাবজ্জীবন সাজা দেওয়া হয় ১৮৫ জনকে, ২০০ জনকে দেওয়া হয় বিভিন্ন মেয়াদে সাজা।

বিশ্ব পরমাণু ক্লাবে বাংলাদেশ:
২০১৭ সালেই বিশ্ব পরমাণু ক্লাবে নাম লেখায় বাংলাদেশ। ৪ নভেম্বর ২০১৭ বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ শর্তাপেক্ষে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম ইউনিটের মূল নির্মাণ পর্বের কাজ শুরুর জন্য বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনকে ডিজাইন অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন লাইসেন্স প্রদান করে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ বিশ্ব পরমাণু ক্লাবে যুক্ত হয়। বাংলাদেশ এ ক্লাবের ৩২তম দেশ। বর্তমানে পৃথিবীর ৩১টি দেশে ৪৫১টি পারমাণবিক বিদ্যুতের ইউনিট চালু রয়েছে। ৩০ নভেম্বর পাবনার ঈশ্বরদীতে দেশের প্রথম ও একমাত্র পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মূল পর্বের অর্থাৎ পারমাণবিক চুল্লি বসানোর কাজের উদ্বোধন করা হয়।

নাসার বর্ষসেরা উদ্ভাবক:
মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার অধীনে গডার্ড স্পেস ফ্লাইট সেন্টারস অভ্যন্তরীণ গবেষণা ও উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় যেসব বিজ্ঞানী বিভিন্ন প্রযুক্তি উদ্ভাবনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেন, তাদের বার্ষিকভাবে স্বীকৃতি প্রদান করা হয়। এ বছর বর্ষসেরা উদ্ভাবক মনোনীত হন বাংলাদেশের মেয়ে মাহমুদা সুলতানা। তিনি মহাকাশে ব্যবহারযোগ্য ক্ষুদ্র ও কার্যকরভাবে আলোক তরঙ্গ শনাক্তকারী বর্ণালিমিটার উদ্ভাবন ও ন্যানো ম্যাটেরিয়ালের উন্নয়নে ‘যুগান্তকারী’ অবদানের জন্য এ খেতাব লাভ করেন।

ষোড়শ সংশোধনীর রায় প্রকাশ: 
সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা সংক্রান্ত হাই কোর্টের দেওয়া রায় বহাল রেখে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায় ১ আগস্ট ২০১৭ প্রকাশিত হয়। এ রায়ে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা তার পর্যবেক্ষণে গণতন্ত্র, রাজনীতি, সামরিক শাসন, নির্বাচন কমিশন, সুশাসন, দুর্নীতি, বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপসহ বিভিন্ন বিষয়ে মতামত দেন। পরবর্তীতে ১ আগস্ট ২০১৭ প্রকাশিত হয় আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায়। আর এর মাধ্যমেই পুনর্বহাল হয় সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল।

মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি:
জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) ৪৪তম সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১০ জুলাই ২০১৭ স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে অংশগ্রহণকারী এবং মুক্তিযুদ্ধকালে গঠিত সাংস্কৃতিক সংগঠনের ৫৮ জন শব্দসৈনিককে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি দেওয়া হয়। ১৩ জুলাই ২০১৭-এ স্বীকৃতির গেজেট প্রকাশ করা হয়। এ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পাওয়া শব্দসৈনিকের সংখ্যা হলো ২৫৩। এ ছাড়া ১৫ জুন এবং ২২ আগস্ট ২০১৭ মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি বাহিনী তাদের সহযোগীদের হাতে নির্যাতিত ১৮ জন বীরাঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পান।

প্রথম কৃত্রিম স্যাটেলাইট:
যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় অবস্থিত নাসার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে স্পেস এক্স ফ্যালকন-৯ রকেটের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের লক্ষ্য উেক্ষপণ করা হয় দেশের প্রথম ন্যানো স্যাটেলাইন ‘ব্যাক অন্বেষ। ৬ জুন ২০১৭ এটি মহাকাশ স্টেশনে পৌঁছায়। এরপর ৭ জুলাই ২০১৭ ব্র্যাক অন্বেষা আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন থেকে কক্ষপথে স্থাপন করা হয়। এর মাধ্যমে দেশের প্রথম ন্যানো স্যাটেলাইট পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ শুরু করে।

সাবমেরিন যুগে বাংলাদেশ:
চীনের তৈরি দুটি ডিজেল-ইলেকট্রিক সাবমেরিনের অন্তর্ভুক্তির মধ্য দিয়ে নতুন যুগে পদার্পণ করে বাংলাদেশ নৌবাহিনী। এর মধ্য দিয়ে ১২ মার্চ বাংলাদেশ নৌবাহিনী একটি ত্রিমাত্রিক বাহিনী হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে আনুষ্ঠানিকভাবে সংযোজিত হয় দুটি আধুনিক সাবমেরিন—বানৌজা নবযাত্রা ও বানৌজা জয়যাত্রা। কনভেনশনাল ডিজেল-ইলেকট্রিক সাবমেরিন দুটির দৈর্য্য ৭৬ মিটার ও প্রস্থ ৭.৬ মিটার। পূর্ণ ধারণক্ষমতা নিয়ে এগুলোর গতিবেগ ঘণ্টায় প্রায় ১৭ নটিক্যাল মাইল।

শততম টেস্ট জয়:
১৫-১৯ মার্চ ২০১৭ কলম্বোর পি সারা ওভালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ শততম টেস্ট খেলে।  এই টেস্টে ইতিহাস রচনা করে বাংলাদেশ। শততম টেস্টে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কাকে ৪ উইকেটে হারিয়ে জয় লাভ করে। ৪ ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত বাংলাদেশ দেশে-বিদেশে মোট ১০৪টি টেস্ট ম্যাচে অংশগ্রহণ করে। এর মধ্যে ১০টিতে জয়লাভ করে বাংলাদেশ।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর: 
এ বছর ৭-১০ এপ্রিল ভারত সফর করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকারের আমলে এটাই ছিল শেখ হাসিনার প্রথম দ্বিপক্ষীয় সফর। সফরে প্রাধান্য পায়  দুই   দেশের অংশীদারিত্ব টেকসই, জ্বালানি খাতে অংশীদারিত্ব, দুই দেশের উন্নয়নে বাণিজ্য-বিনিয়োগ, জল ও আকাশে আরও সংযোগ বৃদ্ধি, প্রতিরক্ষা খাতে জোরালো সহযোগিতাসহ দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয়।

২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস:
এ বছর ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালন করে দেশবাসী। একাত্তরের ২৫ মার্চ রাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বর্বর হত্যাযজ্ঞে নিহতদের স্মরণে ২৫ মার্চকে গণহত্যা দিবস পালনের প্রস্তাব মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত হয় ২০ মার্চ ২০১৭। মন্ত্রিসভা বৈঠকে অনুমোদনের পর ২১ মার্চ ২০১৭ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ পরিপত্র জারির মাধ্যমে  শ্রেণিভুক্ত দিবস হিসেবে ২৫ মার্চ তারিখকে গণহত্যা দিবস পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

ডট বাংলার নিবন্ধন:
আন্তর্জাতিকভাবে বাংলা এগিয়ে গেল আরেক ধাপ। ৫ অক্টোবর ২০১৬ ইন্টারনেট করপোরেশন অব অ্যাসাইন্ড নেমস অ্যান্ড নাম্বারস বাংলাদেশের ডোমেইন কোড ডট বিডি এর পাশাপাশি ডট বাংলা ডোমেইন ব্যবহারের অনুমতি দেয়। প্রথম পর্যায়ে নিবন্ধন শুরু হয় ১ জানুয়ারি। দ্বিতীয় পর্যায়ে নিবন্ধন শুরু হয় ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭। এ পর্যায়ে বাংলাদেশের সর্বসাধারণের জন্য ডট বাংলা ডোমেইন উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।

দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবল:
২১ ফেব্রুয়ারি  তুরস্কের ইস্তাম্বুলে  বাংলাদেশের দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলে সংযুক্ত হওয়ার বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে উদযাপন করা হয়। দ্বিতীয় সাবমেরিন ক্যাবলে সংযুক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ অতিরিক্ত ১,৫০০ গিগাবাইটের (জিবি) বেশি ব্যান্ডউইথ পায়। এর আগে দেশের একমাত্র সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বর্তমানে দেশ পাচ্ছিল ৩০০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ।

পাটের জন্ম রহস্য আবিষ্কার:
পাটের জন্ম রহস্য আবিষ্কার করেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানীরা। বাংলাদেশি বিজ্ঞানীদের পাটের জিনোম সিকোয়েন্স উন্মোচনের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি মিলেছে। বাংলাদেশের ‘সোনালি আঁশ’ খ্যাত পাটের তিনটি জিনোম কোড বাংলাদেশের হয়েছে বলে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ সংসদে জানান। আমেরিকায় অবস্থিত ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফরমেশন (এনসিবিআই) কর্তৃক তিনটি জিনোমের কোড নম্বর লাভ করে বাংলাদেশ।

নতুন গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান:
ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী ইউনিয়নে নতুন আরেকটি গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান পায় বাংলাদেশ পেট্রেলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি লিমিটেড। ২৩ অক্টোবর ২০১৭ মন্ত্রিসভার বৈঠকে নতুন এ গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান লাভের ঘোষণা দেওয়া হয়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, নতুন আবিষ্কৃত এ গ্যাসক্ষেত্রের ৭০০ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের মজুদ রয়েছে। এর আগে ১৯৯৫ সালে ভোলায়  শাহবাজপুর গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কৃত হয়েছিল।

দীর্ঘতম মেরিন ড্রাইভ:
কক্সবাজারে উদ্বোধন করা হয় বিশ্বের সবচেয়ে বড় মেরিন ড্রাইভওয়ে (সাগর পাড়ের সড়ক)। এটির দৈর্ঘ্য ৮০ কিলোমিটার। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে সম্পন্ন হয় এ মেগা প্রকল্প। কক্সবাজার শহরের কলাতলী থেকে টেকনাফের সাবরাং অর্থনৈতিক অঞ্চল পর্যন্ত সাগর পাড়ের এ সড়ক নির্মাণে সময় লাগে ২৪ বছর।

‘নাইটহুড’ উপাধি লাভ:
যুক্তরাজ্যের অন্যতম সর্বোচ্চ সম্মানজনক উপাধি ‘নাইটহুড’ লাভ করেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আখলাকুর রহমান চৌধুরী। ২ নভেম্বর ২০১৭ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ তাকে এ উপাধি প্রদান করেন। দেশটির হাই কোর্ট বিভাগের বিচারক হিসেবে নিয়োগের অংশ হিসেবে তাকে এ উপাধি দেওয়া হয়। তাঁর আদি নিবাস সিলেটের জকিগঞ্জে। যুক্তরাজ্যে বসবাসরত বাংলাদেশিদের মধ্যে তিনি প্রথম ব্যক্তি, যিনি এ উপাধি লাভ করেন।

বঙ্গবন্ধু দ্বীপ:
মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৮০ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং সুন্দরবনের হিরণ পয়েন্ট থেকে ১৫ কিলোমিটার ও দুবলারচর উপকূল থেকে ২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিম অবস্থিত ‘বঙ্গবন্ধু দ্বীপ’। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় দুই মিটার উচ্চতায় অবস্থিত এ দ্বীপের বর্তমান আয়তন ৭.৮৪ বর্গকিলোমিটার। দ্বীপটির চারদিকে গড়ে উঠেছে প্রায় ৯ কিলোমিটার দীর্ঘ ও ৫০০ মিটার প্রশস্ত সমুদ্রসৈকত।

পূর্ণাঙ্গ স্থলবন্দর তামাবিল:
সিলেটের গোয়াইনঘাটের তামাবিল শুল্ক স্টেশনকে স্থলবন্দর হিসেবে ঘোষণা করা হয় ১২ জানুয়ারি ২০০২ সালে । তখন থেকে কাস্টমস ও ইমিগ্রেশনের কার্যালয় ছাড়া এখানে বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের কোনো স্থাপনা বা অবকাঠামো ছিল না। ৮ মে ২০১৫ তামাবিল স্থলবন্দর নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। ২৭ অক্টোবর ২০১৭-এ সিলেটের প্রথম পূর্ণাঙ্গ স্থলবন্দর হিসেবে তামাবিলের উদ্বোধন হয়।

চিকিৎসাবিজ্ঞানে সাফল্য:
শ্যাম্পুর বোতলে নিউমোনিয়ার চিকিৎসা। আইসিডিডিআরবির ক্লিনিক্যাল রিসার্চ বিভাগের প্রধান ড. মো. জোবায়ের চিশতী নিউমোনিয়া থেকে শিশুদের বাঁচাতে আবিষ্কার করেন শ্যাম্পুর বোতল থেরাপি। তাঁর এ চিকিৎসা পদ্ধতির নাম ‘বাবল সিপিএপি পদ্ধতি’। শ্যাম্পুর বোতলের বুদবুদ থেকে সৃষ্ট চাপ ফুসফুসের ছোট বায়ু থলিগুলোকে খুলে রাখতে সাহায্য করে। আর এভাবেই শিশুকে নিউমোনিয়া থেকে বাঁচানোর পথ আবিষ্কার করেন তিনি।

অ্যাপভিত্তিক পরিবহন:
ঢাকায় অ্যাপভিত্তিক পরিবহন সেবা ছিল অন্যতম ঘটনা। অ্যাপের মাধ্যমে গাড়িসেবা পরিচালনার জন্য ১৪ নভেম্বর ২০১৭ ঢাকায় মোটরসাইকেল শেয়ারিং সেবা চালু করে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক উবার। উবার অ্যাপ চালু করে গাড়ি ভাড়া করার পাশাপাশি মোটরসাইকেলও ভাড়া করা যাচ্ছে। এ ছাড়া চালু হয়েছে অ্যাপভিত্তিক যাত্রী পরিবহন সেবা লেটস গো (চলো যাই), ফ্রিড বিডি, পাঠাও, ইজিয়ার এবং স্যাম।

ইলিশের জিআই স্বীকৃতি:
আন্তর্জাতিকভাবে ইলিশের একক মালিকানা পাওয়ার লক্ষ্যে ১৪ নভেম্বর ২০১৬ মত্স্য অধিদফতর ইলিশকে জিআই পণ্য হিসেবে নিবন্ধিত করার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে আবেদন করে। ৬ আগস্ট ২০১৭ DPDT জাতীয় মাছ ইলিশকে বাংলাদেশি পণ্য হিসেবে বিশ্ব স্বীকৃতি অর্জনের কথা ঘোষণা করে। এর আগে দেশের প্রথম জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায় ঢাকাই জামদানি শাড়ি।

READ : 230 times

এইদিনে