image

জীবনের রং যখন হারিয়ে যায়


জাতীয় সংসদ ভবনে রোববার তিনি এসেছিলেন বড়ই নীরবে। লালসবুজ জাতীয় পতাকা গাড়িতে নয়, নিজের শরীরে মুড়িয়ে চুপিচুপি প্রবেশ করলেন। হাজার হাজার মানুষ সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় অপেক্ষা করছিলেন তাঁর জন্য। কে ছিল না সেখানে! রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার শিরিন শারমীন চৌধুরী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্যবর্গ, বিএনপিসহ দেশের প্রায় সব রাজনৈতিক দলের নেতা ছিলেন প্রখর রোদ উপেক্ষা করে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সচিব, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী, মুক্তিযোদ্ধা, কবি কারা ছিলেন না ওই মিছিলে। অনেকেই শ্রদ্ধার ফুল নিয়ে অপেক্ষায়। হাজারো মানুষের এ নীরবতার মধ্যেই অনুজদের কাঁধে চড়ে এলেন সংসদের দক্ষিণ প্লাজায়।

image

ট্রাম্প একা নন


ম্যাসাচুসেটস থেকে উইসকনসিনে উড়ে এসে নেমেছি ম্যাডিসন এয়ারপোর্টে। সেখান থেকে মেয়ের অ্যাপার্টমেন্টে যাওয়ার পথে রাস্তায় দেখি নানা বয়সী নারীরা প্ল্যাকার্ড নিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন। মনে পড়ল দিনটি ২১ জানুয়ারি। ট্রাম্পের শাসনগ্রহণের পরের দিন, প্রতিবাদী নারী-যাত্রায় অংশ নিয়ে ওরা এখন ঘরে ফিরছেন। মনটা খুশিতে ভরে উঠল। অসমতা, গোঁড়ামি আর পুরুষতান্ত্রিকতার বিরুদ্ধে এভাবে সক্রিয় হয়ে ওঠা নারীদের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা এক প্রস্থ বেড়ে গেল। সেই যাত্রায় বহু পুরুষও ছিলেন। একজন বিবেচক পুরুষের মনে নারীর সমানাধিকার নিয়ে সংশয় থাকবে না, এটাই স্বাভাবিক। নারীর অধিকার মানবাধিকার।